Friday, December 20, 2019

বিশ্বব্যাপী দ্বীন ইসলামের পূনরুত্থানে এবং মানব কল্যাণে জামায়াতে ইসলামীর অবিস্মরণীয় সাফল্য

-  শাহাদাতুর   রহমান   সোহেল   

বর্তমানে বিশ্বব্যাপী দ্বীন ইসলামের পূনরুত্থানে এবং মানব-কল্যাণে জামায়াতে ইসলামীর অবিস্মরণীয় অবদান রয়েছে।অন্য অনেক দলের দেশভিত্তিক ছোট ছোট অবদানকেও অনেক বড় করে তুলে ধরা হয়। কিন্তু জামায়াতে ইসলামীর বিশ্বব্যাপী  অবিস্মরণীয় অবদান থাকার পরও এর যৎসামান্য প্রচারও করা হয় না -এটা অত্যন্ত দুঃখজনক। এটা কোরআনের নির্দেশেরও  খেলাফ। পবিত্র কোরআনে সুরা আদদোহায় বলা হয়েছে: “ওয়া আম্মা বিনি’মাতি রাব্বিকা ফাহাদ্দিশ” অর্থাৎ “তোমাদের যে নিয়ামত দেয়া হয়েছে তা মানুষের কাছে প্রচার করে দাও”। সর্ব পর্যাযের জনশক্তির উৎসাহ-উদ্দীপনা বৃদ্ধির জন্যও এটা করা উচিত। জামায়াতে ইসলামীর অবিস্মরণীয় অবদান সম্পর্কে কিছু তথ্য এখানে কিছু পোষ্টে তুলে ধরা হলো:













13) ইফসু(IFSO) এবং এবং আন্তর্জাতিকক্ষেত্রে শিবিরিনেতা ডাঃ সৈয়দ আবদুল্লাহ মোঃ তাহেরের তৎপরতা

14)  ও, আই, সি, গঠন ও জামায়াতে ইসলামীর অবদান

15)  মালয়েশিয়ার ইসলামী আন্দোলন, আনোয়ার ইব্রাহীম এবং জামায়াতে ইসলামী

16) বসনিয়া-হার্জেগোভিনার স্বাধীনতা অর্জন, এর মর্মন্তুদ ইতিহাস ও প্রভাব-প্রতিক্রিয়া এবং জামায়াত ইসলামী

17) কেয়ারটেকার সরকার ব্যবস্থা, আন্তর্জাতিক ক্ষেত্রে এর প্রয়োগ এবং জামায়াতে ইসলামী

18) খোলা চোখে বাংলাদেশের জন্য জামায়াতে ইসলামী ও ছাত্রশিবিরের অবদান

19) বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামীকে উদ্দেশ্য করে তুরস্কের প্রখ্যাত আলেম নুরুদ্দিন ইলদিজের লেখা একটি চিঠি।

20)  মিশরে ইখওয়ানুল মুসলেমীন, বিশ্বব্যাপী এর বিস্তার এবং জামায়াতে ইসলামী

21)  বাংলাদেশ ইসলামী ছাত্রশিবিরের গৌরবোজ্জ্বল ইতিহাস এবং অবদান


23) গণতান্ত্রিক আন্দোলনে বাংলাদেশ জামায়াতে ইসলামী

24) শিবির সভাপতি ব্যারিষ্টার হামিদ হোসাইন আজাদের বিশ্বব্যাপী মানবসেবায় নেতৃত্ব প্রদান

25) তুরস্কে অনুষ্ঠিত হওয়া ESAM কনফারেন্সে শহীদ মাওলানা নিজামীকে নিয়ে প্রেজেন্টেশন...

26) ইসলামী ব্যাংক প্রতিষ্ঠা ও আন্তর্জাতিকভাবে এর বিস্তার এবং জামায়াতে ইসলামী

27) সুদানে ইখওয়ানুল মুসলেমিনের সাফল্য এবং জামায়াতে ইসলামী

28) অধ্যাপক গোলাম আযমের ফর্মুলায় নোবেল বিজয় - মুহাম্মদ ইয়াছিন আরাফাত






উপরে কিছু অবদান তুলে ধরা হলো। পরে আরো দেয়া হবে ইনশাল্লাহ। এসব তুলে ধরার উদ্দেশ্য উল্লাস-অহংকার সৃষ্টি নয়। মনে রাখতে হবে হযরত সোলাইমান (আঃ)-এর এই প্রবাদতুল্য উক্তি: “অহংকার পতনের মূল”। এসবের উদ্দেশ্য ২টি: ১) আল্লাহ’র শুকরিয়ার জযবা তৈরী এবং ২) উৎসাহ-উদ্দীপনা সৃষ্টি করে ইসলামী আন্দোলনের কাজকে অধিকতর এগিয়ে নেয়া। এর জন্য মহান আল্লাহ আমাদের তৌফিক দান করুন, আমীন। 


2 comments:

  1. আলহামদুলিল্লাহ্। আল্লাহ্ আপনাকে এই চর্চায় আরো মজবুতি দান করুন।

    ReplyDelete

Popular Posts